,

সংবাদ শিরোনাম :

শাকিবের অভিযোগ মিথ্যা’

ডেস্ক রিপোর্ট : একমাত্র পূত্র আব্রাম খান জয়কে দেখতেই ঢাকায় এসেছিলেন শাকিব খান বলে সাংবাদিকদের নিকট জানিয়েছিলেন চিত্রনায়ক শাকিব খান। কিন্তু ছেলে জয়কে না দেখেই মঙ্গলবার ভোরে অস্ট্রেলিয়ার উদ্দেশে ঢাকা ছাড়েন।
যাওয়ার আগে গণমাধ্যমকর্মীদের কাছে বলে যান অপু বিশ্বাস তার ছেলেকে দেখতে দেয়নি। শাকিবের লোক বারবার ফোন করেও তাকে পাননি। তাই ছেলের জন্য আনা নানা উপহার না দিয়ে সেগুলো ফেলে রেখে আবার শুটিংয়ে ফিরেছেন।
তবে শাকিবের এ দাবি নাকচ করে দিয়েছেন চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস। অপু বলেন, শাকিবের এই অভিযোগ মিথ্যা। ছেলেকে দেখতে চেয়ে আমার সঙ্গে কোনো যোগাযোগই করে নি শাকিব। আমার ফোন আমার সঙ্গেই ছিল। শাকিবের কোনো কল এতে আসেনি। তার কোনো লোকও আমাকে কল দেয়নি।
অপু বলেন, শাকিব কেন তিনি মিথ্যে কথা বলছেন যে আমি তাকে একবারের জন্যও বাচ্চার মুখ দেখতে দেইনি। একটা কথা বলি, বাবা হিসেবে শাকিব চমৎকার কিন্তু সে আমাকে ফোন করেনি। ছেলের জন্য সব বাবার মতোই তারও টান রয়েছে, নিয়মিত কাছে থাকতে না পারার কষ্টও হয়তো আছে।অপু বলেন, ব্যস্ততার কারণে সে কাছে থাকতে পারে না। কিন্তু যখন সে দেশে আসে সেই সময়টাতে তো ওর উচিত ছেলের কাছে থাকা। ও কখন দেশে আসে কখন যায় কিছুই জানি না আমি। ছেলের সঙ্গেও দেখা করার চেষ্টা করে না। লোকে মন্দ বলবে সেই ভেবে ও নিজের দোষ বারবার আমার ওপর চাপাতে চায়। সেখানে সে বাচ্চার ইমোশন নিয়ে আসে।শাকিব ভক্তদের কাছে প্রশ্ন রেখে অপু বিশ্বাস আরও বলেন, শাকিব খান কি দেশের মানুষকে এতো বোকা মনে করে? ছেলেকে দেখতে চাইলে কে তাকে আটকে রাখবে? সাংবাদিকদের বলে আমাকে খারাপ স্ত্রী প্রমাণ করাই এখন তার উদ্দেশ্য। এতদিন পর এসে ছেলের পাশে একটু সময়ের জন্যও বসতে পারলো না, বাবা হিসেবে লজ্জা হওয়া উচিত ছিল তার।তিনি বলেন, যে বয়সের বাচ্চা বাবা-মায়ের আদরে বড় হয় সে বয়সী জয়ের বাবাকে কাছে না পাওয়ার দুঃখ কি বোঝে শাকিব? উল্টো আমার নামে অভিযোগ করছে। এটা ঠিক নয়।
অপু বিশ্বাস-শাকিব খান আইনত এখনো স্বামী স্ত্রী। শাকিব খান বিবাহ বিচ্ছেদের আবেদন করেছেন। সেটা এখন ঝুলে আছে। অপু চাইছেন মীমাংসা করতে শাকিব চাইছেন বিচ্ছেদ। শেষ পর্যন্ত কোথাকার জল কোথায় গিয়ে গড়ায় দেখার অপেক্ষায় ভক্তরা।

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *