,

সংবাদ শিরোনাম :

গৃহবধূর অশ্লীল ছবি ফেসবুকে ছড়ালো স্বামী

 

ডেস্ক রিপোর্ট :বগুড়ার ধুনট উপজেলায় যৌতুকের টাকা না দিয়ে আদালতে নারী নির্যাতন মামলা করায় এক নববধূর নগ্ন ছবি ফেসবুকে ছেড়েছে তার স্বামী। এ ঘটনায় নববধূর মা বাদী হয়ে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি এবং পর্নগ্রাফী নিয়ন্ত্রণ আইনে বগুড়া আদালতে মামলা দায়ের করেছেন। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে মামলার বাদী পরে আইনজীবী এ্যাড. গোলাম মোস্তফা জিয়ন এ তথ্য নিশ্চিত করেন।
মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার গোসাইবাড়ি গ্রামের রফিকুল ইসলাম রাঙ্গার ছেলে রাসেল বাবু রুমনের সঙ্গে একই গ্রামের মৃত. ফজলুল হকের মেয়ের জান্নাতুল নাঈমের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। এক পর্যায়ে সম্পর্কের সূত্র ধরে বিয়ের জন্য প্রেমিকযুগল বাড়ি ছেড়ে নিরুদ্দেশ হয়। ২০১৭ সালের ১৭ ডিসেম্বর রাসেল বাবু রুমন ও জান্নাতুল নাঈম বিয়ে করেন।
বিয়ের পর রাসেল বাবু নববধূকে নিয়ে নিজ বাড়িতে ফিরে আসলে তার মা-বাবা মেনে নিতে রাজি হয়নি। এ বিষয় নিয়ে উভয় পরে মধ্যে সমঝোতার বৈঠক করে কোনো কাজ হয়নি। এ অবস্থায় রাসেল বাবু তার স্ত্রীর কাছে ৫ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে।
যৌতুকের টাকা পেলে তার মা-বাবাকে বুঝিয়ে স্ত্রীকে ঘরে তুলবে বলে জানায় রাসেল বাবু। কিন্ত জান্নাতুল নাঈমের বিধবা মায়ের পে যৌতুকের টাকা পরিশোধ করা সম্ভব হয়নি। এতে রাসেল বাবু ও তার পরিবারের লোকজন ২৫ জুন নববধূকে নির্যাতন করে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়।
এ ঘটনায় জান্নাতুল নাঈম বাদি হয়ে ২৮ জুন বগুড়া জেলার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এ মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় স্বামী, শ্বশুর ও শ্বাশুড়িসহ ৪ জনকে আসামি করা হয়। আদালত মামলাটি তদন্তের জন্য উপজেলা আনসার ভিডিপি কর্মকর্তাকে তদন্তের নির্দেশ দেন।
এদিকে আদালতে মামলা দায়েরের খবর পেয়ে জান্নাতুল নাঈমের প্রতি স্বামী ও তার পরিবারের লোকজন ক্ষুব্ধ হয়ে উঠে। জান্নাতুল নাঈমকে আদালত থেকে মামলা প্রত্যাহার করে নিয়ে যৌতুকের টাকার জন্য চাপ সৃষ্টি করে রাসেল বাবু। কিন্ত এ প্রস্তাবে সাঁড়া না পেয়ে জান্নাতুল নাঈমের নামে ভুয়া ফেসবুক আইডি খোলে রাসেল বাবু। সেই ফেসবুক আইডির মাধ্যমে জান্নাতুল নাঈমের গলাকাটা ছবি অন্য মেয়ের নগ্ন ছবির সাথে যুক্ত করে ফেসবুক ও ইন্টারনেটে ছেড়ে দিয়েছে রাসেল বাবু।
এ ঘটনায় জান্নাতুল নাঈমের বিধবা মা বাদী হয়ে ১০ জুলাই বগুড়া আদালতে রাসেল বাবু রুমনের বিরুদ্ধে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি এবং পর্নগ্রাফী নিয়ন্ত্রণ আইনে আরও একটি মামলা দায়ের করেন।
বিচারক মামলাটি আমলে নিয়ে বগুড়া পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) এর উপর তদন্তের আদেশ দিয়েছেন।
এ বিষয়ে রাসেল বাবু রুমন বলেন, জান্নাতুল নাঈমের পরিবারের লোকজন আমার ফুফাতো ভাইকে পিটিয়ে হত্যা করেছে। এ ঘটনায় তাদের বিরুদ্ধে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের হয়েছে। ওই মামলাটি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার জন্যই আমার বিরুদ্ধে একাধিক মিথ্যা মামলা দায়ের করেছে।

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *